বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
160 জন দেখেছেন
"ফাতাওয়া-আরকানুল-ইসলাম" বিভাগে করেছেন (21 পয়েন্ট)
পূনঃরায় খোলা করেছেন
রেফারেন্স সহকারে উত্তর চাই।

2 উত্তর

+2 টি পছন্দ
করেছেন (7,586 পয়েন্ট)
নির্বাচিত করেছেন
 
সর্বোত্তম উত্তর
পবিত্র কুরআন সহীহ হাদিসে কতিপয় প্রাণী হালাল বা হারাম হওয়ার কথা স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে। সেগুলো ছাড়া বাদবাকি প্রাণীগুলোর হালাল বা হারাম নিরূপণ করা যায়, এমন মূলনীতিও বর্ণনা করা হয়েছে। মৃত প্রাণী ও শূকর হারাম এ কথা স্পষ্টভাবে বলা হয়েছে। কিন্তু ব্যাঙ খাওয়া হারাম নাকি হালালের অন্তর্ভুক্ত তা স্পষ্টভাবে উল্লেখ হয়নি। তবে বিশুদ্ধ মতে ব্যাঙ ঘৃণিত বা অপছন্দনীয় খাদ্য হওয়ায় মাকরুহ হিসাবে বিবেচিত।

ব্যাঙ খাওয়ার ব্যাপারে অভিজ্ঞ আলিমগণ দ্বিমত পোষণ করেছেন। একদল আলিম তা খাওয়ার পক্ষে সম্মতি দিয়েছেন এবং তাদের অন্য এক দল তা খাওয়াকে মাকরূহ বলেছেন।

আল্লাহ তায়ালা বলেনঃ তোমাদের জন্য সমুদ্রের শিকার ও তার খাদ্য ভক্ষণ বৈধ করা হয়েছে। (সুরা মায়েদাঃ ৯৬)

ইবনে জুরায়জ (রহঃ) বলেনঃ আমি আত্বা (রহঃ)-কে খাল, বিল, নদী-নালা ও জলাশয়ের শিকার সম্পর্কে জিজ্ঞেস করলামঃ এগুলো কি সমুদ্রের শিকারের অন্তর্ভুক্ত? তিনি উত্তর দিলেনঃ হ্যাঁ। তারপর তিনি এই আয়াতটি তিলাওয়াত করেনঃ

আর সাগর দুটি একরূপ নয়ঃ একটির পানি সুমিষ্ট ও সুপেয়, অন্যটির পানি লোনা খর। আর প্রত্যেকটি থেকে তোমরা তাজা গোশত খাও এবং আহরণ কর। (সূরাহ ফাত্বিরঃ ১২)

সাগরের পানি পবিত্র ও মৃত প্রাণী সবই হালাল। (আবূ দাঊদঃ ৮৩, তিরযিমীঃ ৬৯)

উমার (রাঃ) বলেছেন, صَيْدُه যা শিকার করা হয়, আর طَعَامُه সমুদ্র যাকে নিক্ষেপ করে। আবূ বাকর (রাঃ) বলেছেনঃ মরে যা ভেসে উঠে তা হালাল।

ইবনে আব্বাস (রাঃ) বলেছেনঃ طَعَامُه সমুদ্রে প্রাপ্ত মৃত জানোয়ার খাদ্য, তবে তন্মধ্যে যেটি ঘৃণিত সেটি ব্যতীত। বাইন জাতীয় মাছ ইয়াহূদীরা খায় না, আমরা খাই।

শাবী (রহঃ) বলেছেনঃ আমার পরিবারের লোকেরা যদি ব্যাঙ খেত, তাহলে আমি তাদের তা খাওয়াতাম। হাসান (রহঃ) কচ্ছপ খাওয়াকে দোষের মনে করতেন না।

ইবনু আব্বাস (রাঃ) বলেনঃ সমুদ্রের সব ধরনের শিকার খেতে পার, যদিও তা কোন ইয়াহূদী কিংবা খৃস্টান কিংবা অগ্নিপূজক শিকার করে থাকে।

হানাফী মাজহাব অনুসারে জলজ প্রাণীর মধ্যে শুধুমাত্র মাছ অথবা মাছের সাথে সঠিক সাদৃশ্যপূর্ণ প্রাণী হালাল। এ মতের পক্ষে হানাফীদের যুক্তি হলোঃ কুরআন মাজিদে পবিত্র জিনিস হালাল ও নোংরা জিনিসকে হারাম করা হয়েছে। মাছ ছাড়া অন্যান্য জলজ প্রাণীকে মানুষ স্বভাবতই ঘৃণা করে। তাই ব্যাঙ খাওয়া হানাফিদের মতে নোংরা প্রাণী আখ্যায়িত করে হারাম বলা হয়েছে।
+2 টি পছন্দ
করেছেন (4,723 পয়েন্ট)

ব্যাঙ খাওয়া সর্বসম্মতভাবে হারাম। যে সকল ব্যাঙ পানি ছাড়া বাঁচে না সেগুলোও খাওয়া হারাম। কেননা, হাদিসে ব্যাঙ হত্যার ব্যাপারে নিষেধাজ্ঞা এসেছে। এ ব্যাপারে হাদিস হলোঃ আব্দুর রহমান ইবনে উসমান রা. থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, "কোন চিকিৎসক রাসূলুল্লাহ (সঃ)-কে ব্যাঙ প্রসঙ্গে জিজ্ঞেস করলেন এটা ঔষধে প্রয়োগ করবেন কি না? আর, তিনি ওটা হত্যা করতে নিষেধ করলেন। (নাসাঈ হাদীস নং ৪৩৫৫),  (আবূ দাউদ, হাদীস নং ৩৮৭১)

জনাব, শরীয়তের একটি মূলনীতি হল, যে প্রাণী হত্যা করা হারাম তা খাওয়াও হারাম। সেটা খাওয়া হালাল হলে তা হত্যা করা বৈধ হত।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
08 জুলাই 2015 "ধর্ম ও আধ্যাত্মিক বিশ্বাস" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Question (65 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর
29 মে 2015 "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন s.m prodeep (13 পয়েন্ট)

311,647 টি প্রশ্ন

401,256 টি উত্তর

123,178 টি মন্তব্য

172,755 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...