121 জন দেখেছেন
"সরকারী বিশ্ববিদ্যালয়" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (9 পয়েন্ট)
আমি ২০১০ সালে hsc পাশ করি, এরপর বিভিন্ন কারণে লেখাপড়া চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি।  এখন ব‍্যবসা নিয়ে ব্যস্ত, কিন্তু এখন অনার্স কোর্স চালু করতে চাচ্ছি । এখন হোম স্টাডি করে কোথায় থেকে অনার্স কোর্স চালু করতে পারব।

4 উত্তর

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (10 পয়েন্ট)
ভাই আমি লেখাপড়ার লাভ দেখতেছি না কোনো ,

কারন আল্লাহ যাকে চান তাঁকে তার পরিমাণ মতোই রিজিক দান করেন ।

পড়ালেখা বাদ দেন মন দিয়ে ব্যাবসা করুন আর পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করুন ইনশাআল্লাহ ইনশাআল্লাহ ইনশাআল্লাহ আল্লাহ চাইলে আপনার সব চাওয়াই পূর্ণ করে দিবেন , 

একমাত্র আল্লাহর উপরেই ভরসা করুন আল্লাহর সৃষ্টির উপরে নয় ।
মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (142 পয়েন্ট)
Abir vi,,,, অাপনার কথার সাথে অামি বিমত। অামার মতে অাপনার উক্তিটা যথার্থ নহে। কারন হিসাবে,,,, অাল্লাহ্ কে জানতে হলে চিনতে হলে,নবী রাসূলের দেখানো পথে চলতে হলে লেখা পড়া করতেই হবে।পড়াশুনা ছাড়া কিছুই হবে না। যেমনঃ নামাজ পরতে যাবেন সূরা তেলাওয়াত করতে হবে। কোরান মাজিদ তেলাওয়াত করতে যাবেন অারবি জানতে হবে।যদি লেখা পড়া নাই করেন তাহলে এসব জানবেন কীভাবে? ইসলাম ধর্মে প্রতিটি মানুষকে জ্ঞান অর্জনের জন্যে বলা হয়েছে। কথিত অাছে,,১০ জন মূর্খ মানুষের সাথে স্বর্গে বাস করার থেকে একজন শিক্ষক মানুষের সাথে নরক বাস উত্তম। লেখা পড়া যে শুধু মাত্রচাকুরি পাবার জন্যে করতে হয় তা নয়।লেখাপড়ার একমাত্র এবং অাসল উদ্দেশ্য হলো জ্ঞান অহরন করা। [ Sufian sufi ভাই অাপনার করা প্রশ্ন লেখাপড়া করে কি লাভ? .................এর উত্তর হিসাবে এটি add করলাম]
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (115 পয়েন্ট)
আমাকে একজন মোরব্বি ব্যক্তি বলে ছিল মানুষ চাকরির আশায় লেখাপড়া করবে এটি কেয়ামতের একটি লক্ষন।আমার মনে হয় আজ সেই দিন হাজির। কেননা এখন যারা পড়াশুনা করছে সবই চাকরির আশায়। জ্ঞান আর্জনের জন্য নয়।    বই কিনে যেমন কেউ দেওলে হয়না তেমনি জ্ঞান আর্জন করে কেউই দেওলে হয়না। আর রিজিকের মালিক যেহেতু আল্লাহ তায়ালা তাই রিজিকের চিন্তা বাদ দিয়ে জ্ঞান আর্জন করুন। আমার বিশ্বাস এই জ্ঞানের দ্বারা বা অন্য যেকোন ভাবে আপনার খাদ্য এবং কুঠারেরর ব্যবস্হা আল্লাহ তায়ালা করে দেবেন। ধন্যবাদ।
0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (1,278 পয়েন্ট)
সম্পাদিত করেছেন

ব্যবসা তো যে কেউ মূলধন থাকলে করতে পারে,লেখাপড়া তো আর সবার দ্বারা সম্ভব হয় না।অবশ্যই লেখাপড়ার গুরুত্ব আছে।

আল্লাহ তায়ালা নিজে কুরআনে বলেছেনঃ "পড়ুন আপনার প্রভুর নামে,যিনি আপনাকে সৃষ্টি করেছেন।"(সূরা আলাক, আয়াত: ১)।অর্থ্যাৎ,শুরুই হয়েছে পড়ুন থেকে।আর,লেখাপড়া এক প্রকার ইবাদতও বটে।

ইংরেজরা এই উপমহাদেশে প্রথমে লেখাপড়া চালু করতে চায়নি।কারণ,লেখাপড়া শেখানো মানে দেশটাকে হারানো।কিন্তু প্রশাসন চালাতে হলে কিছু আজ্ঞাবহ কেরানী দরকার।তাই,সীমিত পরিসরে তারা লেখাপড়া বা শিক্ষা চালু করে।

তাই আমি বলব,অনার্স কোর্স চালু করুন।পারলে সাথে ব্যবসাও করুন।

0 পছন্দ 0 জনের অপছন্দ
উত্তর প্রদান করেছেন (236 পয়েন্ট)
আপনি যতদূর পারেন লেখাপড়া চালিয়ে যান।জীবন একটা সংগ্রাম।আপনি শুধু যোগ্যতার জন্য লেখাপড়া না করে জীবনকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য লেখাপড়া করুন।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
08 নভেম্বর "শিক্ষা+শিক্ষা প্রতিষ্ঠান" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Kinship (0 পয়েন্ট)

269,935 টি প্রশ্ন

352,789 টি উত্তর

104,517 টি মন্তব্য

143,015 জন নিবন্ধিত সদস্য



বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
* বিস্ময়ে প্রকাশিত সকল প্রশ্ন বা উত্তরের দায়ভার একান্তই ব্যবহারকারীর নিজের, এক্ষেত্রে কোন প্রশ্নোত্তর কোনভাবেই বিস্ময় এর মতামত নয়।
...