বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
53 জন দেখেছেন
30 নভেম্বর 2018 "পবিত্রতা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (19 পয়েন্ট)

2 উত্তর

+1 টি পছন্দ
30 নভেম্বর 2018 উত্তর প্রদান করেছেন (7,370 পয়েন্ট)
মোজা সাধারণত চামড়া এবং সুতার হয়ে থাকে আপনি তার উপর মাসাহ করতে পারবেন।

আবূ শাইবাহ (রহঃ) হাম্মাম (রহঃ) হতে বর্ণিত। তিনি বলেন, একদা জারীর (রাঃ) একবার প্রস্রাব করলেন, অতঃপর ওযু করলেন এবং তার উভয় মোজার উপর মাসাহ করলেন। তাকে বলা হল, আপনি কি এ রকম করে থাকেন? তিনি বললেন, হ্যাঁ, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে দেখেছি তিনি প্রস্রাব করেছেন, তারপর ওযু করেছেন এবং তার উভয় মোযার উপর মাসাহ করেছেন। আমাশ বলেন, ইবরাহীম বলেছেন যে, এ হাদীসটি 'হাদীস বিশারদ' লোকেরা আগ্রহের সাথে গ্রহণ করেছেন। কারণ জারীর (রাঃ) সূরাহ আল মায়িদাহ নাযিলের পর ইসলাম গ্রহণ করেন।

ইবনু উমার (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি সাদ ইবনু মালিক (রাঃ) কে চামড়ার মোজাদ্বয়ের উপর মাসাহ করতে দেখে বলেন, আপনারাও এটা করছেন! এরপর তারা উভয়ে উমার (রাঃ) এর এর নিকট একত্র হলেন। সাদ (রাঃ) উমার (রাঃ) কে বলেন, আমার এই ভাতিজাকে চামড়ার মোজাদ্বয়ের উপর মাসাহ সম্পর্কে ফতওয়া দিন। উমার (রাঃ) বলেন, আমরা রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম -এর সাথে থাকাকালে আমাদের চামড়ার মোজার উপর মাসাহ করতাম। আমরা একে আপত্তিকর দেখতে পাইনি। ইবনু উমার (রাঃ) বলেন, আর যদি সে পায়খানা সেরে আসে? তিনি বলেন, হ্যাঁ সে ক্ষেত্রেও।

(সহীহ মুসলিম হাদিস নম্বরঃ ৫১০ সুনানে ইবনে মাজাহ, হাদিস নম্বরঃ ৫৪৬)
0 টি পছন্দ
18 ডিসেম্বর 2018 উত্তর প্রদান করেছেন (761 পয়েন্ট)


মোজার উপর মাসাহ বৈধ হবার জন্য মোজার মাঝে কয়েকটি বিষয় থাকা জরুরী। যথা-



মোজাটি এতটুকু মোটা হতে হবে যে, এর মাঝে পানি পড়লে তা পায়ে পৌঁছে না।



উক্ত মোজা এতটুকুই মোটা যে, মোজাকে কোন কিছু দিয়ে বাঁধা ছাড়াই শুধু মোজা পা দিয়ে চার মাইলের মত হাটা যাবে, কিন্তু মোজা ছিড়বে না



মোজার এতটুকু বড় হতে হবে যে, টাখনুসহ ঢাকা থাকতে হবে।


সুতরাং পরিস্কার হয়ে গেল যে, আমাদের দেশের প্রচলিত কাপড়ের পাতলা মোজার উপর মাসাহ করা কিছুতেই জায়েজ নয়।


পবিত্র অবস্থায় মোজা পরিধান করার পর মুকিম হলে একদিন এক রাত পর্যন্ত আর মুসাফির হলে তিনদিন তিন রাত পর্যন্ত উক্ত মোজার উপর মাসাহ করতে পারবে। এর চেয়ে বেশি পারবে না।


عَنْ خُزَيْمَةَ بْنِ ثَابِتٍ، عَنِ النَّبِيِّ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ، قَالَ: «الْمَسْحُ عَلَى الْخُفَّيْنِ لِلْمُسَافِرِ ثَلَاثَةُ أَيَّامٍ، وَلِلْمُقِيمِ يَوْمٌ وَلَيْلَةٌ»، (سنن ابى داود، رقم الحديث-157)


عَنِ الْمُغِيرَةِ بْنِ شُعْبَةَ، «أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صَلَّى اللهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ تَوَضَّأَ وَمَسَحَ عَلَى الْجَوْرَبَيْنِ، وَالنَّعْلَيْنِ (سنن ابى داود، رقم الحديث-159)


ولا يجوز المسح على الجوربين عند أبي حنيفة إلا أن يكونا مجلدين أو منعلين وقالا يجوز إذا كانا ثخينين لا يشفان “(هداية، كتاب الطهارة، باب المسح على الخفين-1/61)


وفى البدائع- وَأَمَّا الْمَسْحُ عَلَى الْجَوْرَبَيْنِ، فَإِنْ كَانَا مُجَلَّدَيْنِ، أَوْ مُنَعَّلَيْنِ، يُجْزِيهِ بِلَا خِلَافٍ عِنْدَ أَصْحَابِنَا وَإِنْ لَمْ يَكُونَا مُجَلَّدَيْنِ، وَلَا مُنَعَّلَيْنِ، فَإِنْ كَانَا رَقِيقَيْنِ يَشِفَّانِ الْمَاءَ، لَا يَجُوزُ الْمَسْحُ عَلَيْهِمَا بِالْإِجْمَاعِ، وَإِنْ كَانَا ثَخِينَيْنِ لَا يَجُوزُ عِنْدَ أَبِي حَنِيفَةَ وَعِنْدَ أَبِي يُوسُفَ، وَمُحَمَّدٍ يَجُوزُ.(بدائع الصنائع-1/101)


وفى الفقه الاسلامى وادلته- يمكن المشي في الجورب إذا كان ثخيناً، كجوارب الصوف اليوم. وبه تبين أن المفتى به عند الحنفية: جواز المسح على الجوربين الثخينين، بحيث يمشي عليهما فرسخاً فأكثر، ويثبت على الساق بنفسه، ولا يرى ما تحته ولا يشف. واشترط المالكية كأبي حنيفة: أن يكون الجوربان مجلّدين ظاهرهما وباطنهما، حتى يمكن المشي فيهما عادة، فيصيران مثل الخف. وهو محمل أحاديث المسح على الجوربين. (الفقه الاسلامى وادلته-1/344


والله اعلم بالصواب

উত্তর লিখনে

লুৎফুর রহমান ফরায়েজী

পরিচালক-তালীমুল ইসলাম ইনষ্টিটিউট এন্ড রিসার্চ সেন্টার ঢাকা।

টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
1 উত্তর
1 উত্তর
23 জানুয়ারি 2014 "পবিত্রতা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Rafia Begum (2,125 পয়েন্ট)

305,594 টি প্রশ্ন

394,417 টি উত্তর

120,171 টি মন্তব্য

169,389 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...