বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
102 জন দেখেছেন
"ফাতাওয়া-আরকানুল-ইসলাম" বিভাগে করেছেন (607 পয়েন্ট)
এক রা‌তে আপু ও তার প্রেমিক ফোনে কথা বলছিলেন। আপুর প্রেমিক আপুকে বললো যে "অাসো অামরা অাজ এই রা‌তে বি‌য়ে ক‌রি অাল্লাহ, তার রাসুল‌ ও এই রাত‌কে সা‌ক্ষি রে‌খে"" তারপর আপু তিনবার ও আপুর প্রেমিক তিনবার কবুল বলছিল। 

এই ক্ষেত্রে বিয়েটা হয়ে গেছে নাকি হয় নি। সঠিক মাসয়ালা জানতে চাই, 

(আপুর ২/৩ পর  বিয়ে,  তাই তাড়াতাড়ি এর সঠিক উত্তর চাই)  
করেছেন (2,041 পয়েন্ট)
বিবাহ হয় নি  ।

3 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (3,792 পয়েন্ট)
উল্লিখিত কথোপকথনে তাদের বিবাহ সংঘটিত হয়নি৷ আল্লাহ, রাসূল, আকাশ, বাতাস, জগত ইত্যাদিকে সাক্ষী রেখে বিবাহ করলে তা সংঘটিত হয় না৷ তথপি এখানে আরো একটা বিষয় প্রয়োজন, তাহলো অভিভাবকের অনুমতি৷ তাও এ বিবাহে নেই৷ সুতরাং কোনভাবেই এ বিবাহ সংঘটিত হয়নি৷
করেছেন (607 পয়েন্ট)
অতিরিক্তপ্রশ্নঃ এখানে বিয়েটা শুদ্ধ না হওয়ার জন্য " অভিবাবক"" এর অনুপস্থিতির বিষয়ট প্রাধান্য পেয়েছে, তাই তো ? জানতে ইচ্ছুক,  কি কি কাজের মাধ্যমে বিয়ে করা যায় ? যেমন, কবুল বলা, অভিবাবক , আর  কি কি লাগে ? জানালে খুশি হতাম।
0 টি পছন্দ
করেছেন (7,355 পয়েন্ট)
রাসুল (সাঃ) বলেছেন, যে নারী তার অভিভাবকের সম্মতি ছাড়াই নিজে নিজে বিবাহ করে, তার বিবাহ বাতিল, বাতিল, বাতিল।

(আহমাদ, আবূ দাঊদ, তিরমিযীঃ ১১০, ইবনে মাজাহ, দারেমী, মিশকাত ৩১৩১)

এমন ছেলে-মেয়েদের দাম্পত্য, চির ব্যভিচার হয়। যেহেতু তাদের বিবাহ শুদ্ধ নয়।

ইসলামে বিয়ের রুকন বা খুঁটি তিনটি:

এক: বিয়ে সংঘটিত হওয়ার ক্ষেত্রে সমূহ প্রতিবন্ধকতা হতে বর-কনে উভয়ে মুক্ত হওয়া।

দুই: ইজাব বা প্রস্তাবনা।

তিন: কবুল বা গ্রহণ। এটি বর বা বরের প্রতিনিধির পক্ষ থেকে সম্মতিসূচক বাক্য। যেমন- বর বলতে পারেন আমি গ্রহণ করলাম অথবা এ ধরনের অন্য কোন কথা।

বিয়ে শুদ্ধ হওয়ার উল্লেখযোগ্য শর্ত হলো সাক্ষীঃ

বিয়ের আকদের সময় সাক্ষী রাখতেই হবে। দলীল হচ্ছে- নবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, অভিভাবক ও দুইজন সাক্ষী ছাড়া কোন বিবাহ নেই। (তাবারানী, সহীহ জামে ৭৫৫৮)

নিজেরাই নিজে কবুল বললে এক্ষেত্রে বিয়েটা হয়ে যাবেনা।
0 টি পছন্দ
করেছেন (572 পয়েন্ট)
প্রশ্নোল্লিখিত বিবরণ সঠিক হয়ে থাকলে ইসলামি শরিয়ত অনুযায়ী তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয় নি৷ কেননা বিয়ের জন্য দুজন পুরুষ/ একজন পুরুষ দুজন মহিলার সাক্ষী হিসেবে থাকা আবশ্যক৷ আর প্রশ্নের বর্ণনায় আল্লাহ/রাসুল সাঃ ও রাতকে সাক্ষী করেছে যা শরিয়তে ধর্তব্য নয়৷ তাই তাদের বিয়ে হয় নি৷ এছাড়াও মোবাইলে/ফোনে বর-কনের ইজাব-কবুল শরিয়তে গ্রহণীয় নয়৷
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

305,058 টি প্রশ্ন

393,841 টি উত্তর

119,935 টি মন্তব্য

169,119 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...