বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
1,435 জন দেখেছেন
"প্রাণীবিজ্ঞান" বিভাগে করেছেন (2,012 পয়েন্ট)

image

করেছেন (2,012 পয়েন্ট)
ধন্যবাদ আপনাকে।

5 উত্তর

+2 টি পছন্দ
করেছেন (595 পয়েন্ট)
সুন্দর মেয়েদের দেখলে ভালোবাসা নয় আপনার মনে উত্যেজনা সৃষ্টি হয়। যা আপনার হরমনজনিত কারণে হয়ে  থাকে। যাদের দেখে ভালোবাসা সৃষ্টি হয় তাদের দেখে এই উত্যেজনা সৃষ্টি হয়না। দেখবেন হস্তমৈথুনের পর সুন্দর মেয়ে দেখলেও ভালো লাগেনা।
0 টি পছন্দ
করেছেন (1,532 পয়েন্ট)
প্রতিটা ছেলে মেয়েদের বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আকর্ষণ বেশি থাকে। আর সুন্দর মানুষ, সুন্দর বস্তুর প্রতি প্রত্যেকের আকর্ষণ টা একটু বেশিই থাকে। যেমন মণে করুন বাজার কলা বিক্রয় হচ্ছে দুই প্রকারের। ১টা দেখতে ও খেতে ভালো আর ১প্রকারের গুলো পঁচা। আপনি কি পঁচা গুলো ক্রয় করবেন। ঠিক তেমনি প্রত্যেকের সৌন্দর্যের প্রতি একটু বেশি আকর্ষণ থাকে। আর যখন সুন্দরী মেয়ে দেখা হয় তখন ছেলেরা একটু বেশি আকর্ষিত হয় এবং আবেগের টানে মণে ভালবাসা অনুভূত হয়।
করেছেন (40 পয়েন্ট)

প্রশ্নে বলা হয়েছে কেন আকৃষ্ট হয়,

0 টি পছন্দ
করেছেন (7 পয়েন্ট)
কারন,,,নারীদের প্রতি ছেলেরা একটু দূর্বল।আর আপনি হয়ত জানেন যে,নারীরা ছেলেদের বুকের পাজঁর ধারা সৃষ্টী।আর এই পাঁজরটা এতটাই হালকে যে,,এটা চাপ বা আঘাত খেলেই ভেঙে যাবে।সুতরাং,এটা স্পষ্ট সৃষ্টীকর্তা তাদের প্রতি একটু দূর্বল করে দিয়েছেন পুরুষদের।তাই কোন সুন্দরী মেয়ে দেখলে ভেতরে একটা ভালো লাগা কাজ করে।খনিকের জন্য হলেও কাছে পেতে ইচ্ছে করে।অনেকে এটাকে আবেগ বললেও,,,আমি বলবো না।কারন,আবেগ নির্ভর করে বয়স ও কতটা ভালোবাসেন তার উপর।নারীদের প্রতি এই দূর্বলতার কারনেই এটা হয়। বি:দ্র:কথা গুলো সাজিয়ে লিখতে পারিনি।তবে,এটাই বাস্তব।
0 টি পছন্দ
করেছেন (98 পয়েন্ট)
প্রতিটি মানুষেরই প্রাকৃতিক ভাবে বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আকর্ষন হওয়াটি স্বাভাবিক। কিন্তু সাধারণত, কুৎসিত সোন্দার্যের কারো প্রতি সেভাবে কেউ আকর্ষিত হয় না যতটা সুন্দর/সুন্দরীদের প্রতি মানুষ আকর্ষণ হয়। এটাও স্বাভাবিক বিষয় যে, সবার চোখেই সুন্দর জিনিষকেই ভালো লাগবে। তবে ভালবাসার বিষয়টি সবার মধ্যে নয়, কিছু শ্রেণীর লোক রুপ থেকে চরিত্রকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে ভালবাসার মানুষ নির্বাচিত করে, কিছু লোক সম্পত্তি /সম্পত্তি ও কিছু লোক রুপের আকর্ষণেই পরাজিত হয়ে থাকে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (1,899 পয়েন্ট)

পৃথিবী টা সুন্দরের জন্য পাগল আর এই সুন্দর মানুষের মন নির্ভর। প্রত্যেক মানুষের চোখে সুন্দরতা আলাদা ভাবে প্রকাশ পায় । বই প্রেমিক তার বইয়ের পাতায় সৌন্দর্য খুজে পায় এতে বইয়ের বাহ্যিকতা যতই কুৎসিত হোক না কেন । প্রকৃতি প্রেমির কাছে প্রকৃতি সুন্দর তার কাছে কর্দমাক্ত জঙ্গল সুন্দর আর কারো কাছে তা দুস্বপ্ন।  বাইক প্রেমিকের কাছে বাইক সুন্দর তার কাছে তার সুন্দরী মেয়ের তুলনায় তার বাইক বেশি সুন্দর । তাহলে বুঝাই যাচ্ছে যার মন যেমন তার কাছে তার সুন্দর তেমন । এখন প্রশ্নকর্তা জিজ্ঞেস করেছেন সুন্দর মেয়ে দেখলে মনে ভালোবাসা বা ভালো লাগা আসে কেন।  আমরা প্রশ্ন টাকে ছোট করে কয়েকটা ভাগে করে নেই তাহলে উত্তর প্রদানে তা সুন্দর হয়ে উঠবে যেহেতু বিষয়টা সুন্দরের । 

  1. সুন্দর মেয়ে কথাটার মানে কি?: প্রথমে যেমন বলেছি সবার কাছে তার মন যেমন তার সুন্দর ভালোলাগাও তেমন । তবে যদি সমাজের অধিকাংশের কথা চিন্তা করি তাহলে বর্তমানের যুবসমাজের চোখে সুন্দর মেয়ে বলতে দেখতে সুন্দর । সুন্দর গড়নের ফর্সা একটা মেয়ে কে বুঝায় । কিন্তু কারো কাছে এই সুন্দর প্রকৃত সুন্দর নয় । সুন্দর বা সৌন্দর্য কখনো রং দিয়ে হয় না।  যদি তাই দিয়ে হত তাহলে সাউথ আফ্রিকার কোনো মেয়ে কখনো মিস ওয়ার্ল্ড হত না । সৌন্দর্য প্রকাশ পায় একটি মেয়ের মুখের কাঠিন্য থেকে কথা বার্তা চলার ভঙ্গিমা সমাজে সবার সাথে তার ব্যবহার চাল চলন ভদ্রতা নম্রতা থেকে সুন্দর মেয়ের পরিচয় পাওয়া যায়।  সমাজে অনেক মেয়েই সুন্দর হয় তাদের মধ্যে কেউ সমালোচনার শিকার হয় কেউ হয় প্রশংসার এখানেই মূলত পার্থক্য । তাই সুন্দর মেয়ে কালো ও হতে পারে শ্যাম বর্ণ ও হতে পারে । আসা করি আমি বুঝাতে পেরেছি সুন্দর মেয়ে কথাটির দ্বারা কি বলা হয়েছে বা কি বুঝাতে চেয়েছেন প্রশ্নকর্তা (ভাবনার অমিল থাকতে পারে)
  2. সুন্দর মেয়ে দেখলে আমাদের অর্থাৎ ছেলেদের মনে যে অনূভুতি তৈরি হয় সেটা কি? : প্রথমে যে কথাটা না বললেই নয় তা হলো সুন্দরের প্রতি মানবিক ভালোলাগা বা আকর্ষণ । একটা সুন্দর গান একটা সুন্দর ফুল একটা সুন্দর মানুষকে স্বাভাবিক প্রাকৃতিক নিয়মেই আমরা ভালোবাসি পছন্দ করি । এখন আসি ছেলেদের কেন ভালো লাগে মেয়েদের (বিপরীত লিঙ্গের প্রতি আকর্ষণ সর্বদাই থাকে । চুম্বকের বিপরীত মেরুর মতো)। যখন একটি ছেলে তার মনের মতো কোনো মেয়ে দেখতে পায় তখন তার মস্তিষ্কে স্নায়ুবিক উত্যেজনা তৈরি হয় যা রাসায়নিক কারণে তৈরি হয় এর এখান থেকে মানুষের মনে এক প্রকার অনুভূতির সৃষ্টি হয় । মানুষের মন যা এখনো আবিষ্কার করা সম্ভব হয় নি । এই স্নায়ুবিক উত্যেজনার কারণে একটা ভালোলাগা কাজ করে যা একসময় ভালোবাসায় রূপ লাভ করে । হূমায়ুন আহমেদ বলেছেন," একটি ছেলে বা মেয়ে কখনো ভালো বন্ধু হতে পারে না একবার না একবার তাদের মধ্যে একে অপরের প্রতি একটা আকর্ষণ তৈরি হয় "। একটা রোবটের সাথে একটা মেয়েকে রাখলে যেমন তার মধ্যে কোনো আবেগ তৈরি হয়না তেমনি একটা ছেলের মেয়ের সান্নিধ্য পেলেই এক আবেগ বা অনুভূতির সৃষ্টি হবে । 
  3. মানুষ সুন্দরের পূজারি । সুন্দর কালো ও হতে পারে শুধু দৃষ্টিভঙ্গির উপর এটা নির্ভর করে । 

আসা করি আমি প্রশ্নকর্তার জানার আগ্রহ কে একটু হলেও প্রশমিত করতে পেরেছি । 

ধন্যবাদ 

মতের পার্থক্য থাকতে পারে । সবার মতকে গুরুত্ব দিতে শিখুন । ভুল ধরিয়ে দিবেন এই আশা করি । 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
10 জানুয়ারি 2018 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ferdousi Rakhi (2 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর
13 ফেব্রুয়ারি 2014 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sanjoy (2,489 পয়েন্ট)
1 উত্তর
10 সেপ্টেম্বর 2014 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন shohan (4,190 পয়েন্ট)
3 টি উত্তর
03 জানুয়ারি 2014 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Ferdausi (5,273 পয়েন্ট)

293,490 টি প্রশ্ন

379,969 টি উত্তর

114,846 টি মন্তব্য

161,082 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...