বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
41 জন দেখেছেন
"নিত্য ঝুট ঝামেলা" বিভাগে করেছেন (62 পয়েন্ট)
পূনঃপ্রদর্শিত করেছেন
আমার এক মেয়েকে দেখে পছন্দ হয়েছে।সে ৯ এ পড়ে।আমি ৮ এ পড়ি।আমি খুব লাজুক। কোন সম্পর্কে জড়াতে চাইনা।আল্লাহকে ভয়করি।আজ পর্যন্ত কন মেয়ের সাথে কথা বলি নাই।কিন্তু সেই মেয়েকে কোন কারণ ছাড়াই ভাললেগেছে।তাকে নিয়ে সবসময় কল্পনা করি।এতে নামাজে তথা পড়ায় সমস্যা হচ্ছে।আমি কি করে তাকে ভুলতে পারি?আবার যখন মনে হয় তার যদি অন্য কার সাথে বিয়ে হয় তখন বুক ফেটে কষ্ট হয়।আমি পানাহ চাই। এটা আবেগ নয় এটা ভালোবাসা কিন্তু পানাহ চাই।আমার জন্য দোয়া করবেন আমি এবার JSC দেব।সবার উত্তর চাই। 

1 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (14,752 পয়েন্ট)

১. পরিবারের সাথে বেশি করে সময় কাটান :


পরিবার এমন একটি জায়গা যেখানে আপনার কখনোই মন খারাপ হবে না। এ কারণে আপনি যতটা বেশি পরিবারের সাথে সময় ব্যয় করবেন ততটা বেশি আপনি অনুভব করতে পারবেন যে জীবনে প্রেমিক/প্রেমিকাের প্রয়োজনীয়তা একেবারেই নেই।


২. ক্যারিয়ারে গুরুত্ব দিন :


আপনি যখন আপনার ক্যারিয়ার তৈরিতে বেশি মনোযোগ দেবেন তখন স্বাভাবিকভাবেই আপনার সমস্ত সময় পার হবে এর পেছনেই। ফলে আপনার মনে এই চিন্তা আসার সময়ই হবে না যে প্রেমিক/প্রেমিকা জাতীয় কিছু একটা আপনার জীবনে থাকা প্রয়োজন।



৩. ফ্যান্টাসি সাহিত্য পড়ুন :



ফ্যান্টাসি বিষয়টিই মানুষকে হাসিয়ে তোলে এবং মানসিকভাবে সবসময় সতেজ রাখে। এ কারণে ফ্যান্টাসি বিভিন্ন ধরনের কবিতা, গল্প, উপন্যাস জাতীয় সাহিত্য পড়–ন। দেখবেন আপনি বেশ প্রাণবন্ত হয়ে উঠেছেন। এর ফলে আপনার জীবন থেকে প্রেমিক/প্রেমিকাের প্রয়োজনীয়তাও ফুরিয়ে যাবে। টিভি তে প্রগ্রাম দেখেও তার থেকে মনকে ভুলিয়ে রাখতে পারেন।


৪.বন্ধুবান্ধবের সাথে সময় কাটান: বন্ধুবান্ধবের সাথে যতোটা সম্ভব বেশি সময় কাটানোর চেষ্টা করুন। তবে খেয়াল রাখবেন যে বন্ধুটি আপনাকে খোঁচামূলক কথা শোনাবে এবং অযথা কথা বলবে তার থকে দূরে থাকবেন এই সময়। যে আপনার আসল বন্ধু হবে তিনি আপনাকে সময় দেবেন এবং আপনার সাথে সেধরনেরই ব্যবহার করবেন যাতে আপনি আপনার প্রাক্তন প্রেমিক/প্রেমিকা সম্পর্কে কিছু মাথায় না আনেন। এভাবে আপনি সহজেই ভুলে যেতে পারেবন তাকে।




৫.নিজেকে ব্যস্ত রাখুন পছন্দের কোনো কাজে: আপনার যা করতে ভালো লাগে সে কাজে মনোনিবেশ করুন। নিজেকে ব্যস্ত রাখুন। আপনি যতো ব্যস্ত থাকবেন অতীত আপনার মন থেকে ততো দ্রুত মুছে যাবে। যখনই তার কথা মনে পড়বে তখনই আপনি যদি আপনার মনোযোগ সরিয়ে নিতে পারেন তা আপনার জন্যই ভালো হবে।


পরিশেষে উপদেশ..বেশি বেশি করে কোরআন হাদিস কে জানুন এবং পড়ুন, কথায় আছে অলস মস্তিষ্ক শয়তানের কারখানা। আপনি যদি নিজেকে কোন কিছুর ভিতরে ব্যস্ত রাখেন, তাহলে আপনার ওই দিকে মন-মানসিকতা যেতে পারবে না  তাই আপনি যে কোন একটি উদ্দ্যশ্য নিয়ে ব্যাস্ত  থাকুন, সেটি হতে পারে নামাজ, পড়ালেখা ইত্যাদি।  বিস্ময়ের সাথে সময় কাটান..অপরকে 

সাহায্য(উত্তর করে), জ্ঞান অর্জন করে নিজেকে ব্যাস্ত 

রাখতে পারেন।  

জুনায়েত ইসলাম: দেশ ও মানুষের সেবায় নিজেকে আত্মনিয়োগ করতে সদা প্রস্তুত। শৃঙ্খলা ও ফিটনেস সম্পর্কে খুব সচেতন এবং প্রচন্ড দেশ প্রেমী এজন্যই দেশ রক্ষার মতো পবিত্র দায়িত্ব বেছে নিয়েছেন পেশাগত জীবনে। জ্ঞানার্জনের লক্ষ্যে ও পরোপকারের স্বার্থে দীর্ঘদিন থেকেই বিস্ময় অ্যানসারের সাথে অঙ্গাঅঙ্গি ভাবে জড়িত।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

0 টি উত্তর
22 ডিসেম্বর 2017 "আউটসোর্সিং" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Abdur Rakib Raihan (418 পয়েন্ট)
1 উত্তর
02 সেপ্টেম্বর 2018 "বিনোদন ও মিডিয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মোঃ জিহাদ হোসেন (943 পয়েন্ট)

331,952 টি প্রশ্ন

422,819 টি উত্তর

131,363 টি মন্তব্য

181,214 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...