বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
147 জন দেখেছেন
"ইসলাম" বিভাগে করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

1 উত্তর

+1 টি পছন্দ
করেছেন (7,667 পয়েন্ট)
ইসলামী শরীয়াতে কাম-উত্তেজনা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে স্ত্রীকে পুরোপুরি উলঙ্গ করে সহবাস করার বৈধতা আছে।

সহবাসের সময় সম্পূর্ণ উলঙ্গ হওয়া একে অপরের লজ্জাস্থান না দেখা এ হলো লজ্জাশীলতার পরিচয়। পরন্ত শরীয়তে তা হারাম নয়। অর্থাৎ রুম সম্পূর্ণ বন্ধ থাকলে এবং সেখানে স্বামী স্ত্রী ছাড়া অন্য কেউ না থাকলে আর পর্দার প্রয়োজন নেই। স্বামী স্ত্রী একে অন্যের লেবাস। উভয়ে উভয়ের সব কিছু দেখতে পারে।

অর্থাৎ, স্বামী স্ত্রী একে অপরের গোপন অঙ্গ দেখতে পারবে শরীয়তে তাতে কোন বাধা নেই। স্বামী স্ত্রী উভয়েই উভয়ের সর্বাঙ্গ নগ্নবস্থায় দেখতে পারে। (ফাতাওয়া ইবনে উষাইমীনঃ ২/৭৬৬)

তবে লজ্জাস্থান অপ্রয়োজনে খুলে রাখা বৈধ নয়।

নাবি (সাঃ) বলেছেন, তুমি তোমার স্ত্রী ও ক্রীতদাসী ছাড়া অন্যের নিকট লজ্জাস্থানের হেফাজত কর।

সাহাবী বললেন, হে আল্লাহর রাসুল! লোকেরা আপসে এক জায়গায় থাকলে?

তিনি বললেন, যথাসাধ্য চেষ্টা করবে, কেউ যেন তা মোটেই দেখতে না পায়।

সাহাবী বললেন, হে আল্লহর রাসুল! কেউ যদি নির্জনে থাকে?

তিনি বললেন, মানুষ অপেক্ষা আল্লাহ এর বেশী হকদার যে, তাকে লজ্জা করা হবে। (আবূ দাউদ, তিরমিযী, ইবনে মাজাহ, মিশকাতঃ ৩১১৭)

এখানে তুমি তোমার স্ত্রী ও ক্রীতদাসী ছাড়া অন্যের নিকট লজ্জাস্থানের হেফাজত কর। এর মানে এই নয় যে, স্ত্রী ও ক্রীতদাসীর কাছে সর্বদা নগ্ন থাকা যাবে। উদ্দেশ্য হল, তাদের মিলনের সময় অথবা অন্য প্রয়োজনে লজ্জাস্থান খোলা যাবে অপ্রয়োজনে নয়।

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

3 টি উত্তর
1 উত্তর
12 জুলাই "ইসলাম" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

314,005 টি প্রশ্ন

403,544 টি উত্তর

124,058 টি মন্তব্য

173,857 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...