বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
96 জন দেখেছেন
"প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
সমস্যাটা আমার এক বোনের। সে বিবাহিতা তার ২ বছরের একটা ছেলে আছে স্বামি সংসার নিয়ে সুখেই আছে। ৭ মাস আগে আমার বোনের সাথে fb তে একটি ছেলের পরিচয় হয় চ্যাটিংএ তাদের ভিতরে ঘনিস্ট কথা বর্তা হয় তাদের সামনা সামনি দেখা হয়নি। মেয়েটি বিবাহিত বাচ্চা আছে ছেলেটা সবই যানে। কিন্তু ছেলটি তাকে দেখা করার জন্য চাপ দিতে থাকে। হুমকি দিচ্ছে দেখা না কররে অত্যহত্যা করবে। এর ভিতরে ছেলেটি বিষ খেয়ে আত্যহত্যার চেস্টাও করেছে তার পরে বাধ্য হয়ে তাকে শান্ত করতে দেখা করে তাকে সব কিছু বুজায় মেয়েটি ছেলেটির মা ও বোনকেও বুজায় কিন্তু তারা কেউ কিছু বুজতে চায়না। ছেলের মা বলে ওর যদি কিছু হয় তাহলে তোমাকে ছাড়বোনা। তারা মেয়েটিকে তার স্বামিকে ডিবোর্স দিয়ে ওই ছেলেকে বিয়ে করতে চাপ প্রয়োগ করছে। কিন্তু মেয়েটার কোন ভাবেই এই কাজটি করা সম্বাভ না মেয়েটি এই টেনশনে আত্যহত্যা করাও পরিকল্পনা করেছিলো তাকে যথা সাধ্য মটিফিকেশন দিয়ে এই আসংঙ্কা দুর হয়েছে। কিন্তু ছেলেটিকে নিয়ে টেনশন মেয়েটি যোগাযোগ বন্ধ করতে পারছেনা যথারিতি তাকে ব্লাকমেইল করেই যাচ্ছে। এমন অবস্থা কি করতে পারি। 

3 উত্তর

+3 টি পছন্দ
করেছেন (13,708 পয়েন্ট)

ভাই আমি মেয়েটিকে উদ্দেশ্য করেই উত্তর লিখতাছি আপনি পড়ুন এবং আশা করি  মেয়েটিকে পড়ার  সুযোক দিবেন  ।

সব থেকে ভালো হবে আপনি ছেলেটির সাথে যোগাযোগ বন্ধ করুন আপনার স্বামীকে সব কথা খুলে বলুন ।ফেসবুক ও সকল যোগাযোগ মাধ্যম বন্ধ করুন।  এর পরেও আপনাকে ডিস্টার্ব করলে আপনার স্বামিকে জানান এবং আইনের আশ্রয় নিতে পারেন। তবে আপু আপনি ভুল করেছেন বিয়ের পরেও অন্য ছেলের সাথে কথা বলায়। যা আপনাকে আজ পস্তাতে হচ্ছে। আপনি ছেলেটির   ব্লাকমেইল করা  কোন কথাই শুনবেন না তাকে এড়িয়ে চলুন।তাকে বকা দিন। ছেলেটির পরিবারের সাথে কোন যোগাযোগ করবেন না। আপনি সর্বদাই চুপ থাকেন। যদি ছেলেটি কোন কিছু করার চেস্টা করে তাহলে তা জেনো আপনার কানে না আশে সেই মনভাব তৈরি করুন । আপনি তার কথা ও তাকে নিয়ে দুশ্চিন্তা বা কোন চিন্তাভাবনা করবেন না। 

মনে রাখবেন আপনার মাঝে যদি ঐ ছেলেটির প্রতি একটু হলেও ভালোবাসা জন্মে তাহলে আপনার বাকি জীবনে পস্তাতে হবে।  কেনো না পারছেন না স্বামী সন্তান ছাড়তে পারছেন না ঐ ছেলেকে ভুলতে। হতে পারে ছেলেটি আপনাকে মিথ্যে ব্লাকমেইল করছে । আপনার স্বামী সন্তান  সংসার  ছেড়ে অন্যছেলের কথা ভাবেন কিভাবে আমার মাথায় আসে না।

প্লিজ আপু আপনার স্বামী   সন্তান সুখের সংসার ছেড়ে অন্যের কাছে যাবেন না। 

মেয়েটিকে নিয়ে কিছু কথা :-   আপু আপনি একজন  বিবাহিতা নারী আর আপনার    ২ বছরের একটা ছেলে আছে আপনি  স্বামি সংসার নিয়ে খুবেই  সুখে আছেন।

তবে এই সুখের মাঝে কেনো কোষ্ট ডেকে আনলেন। একজন বিবাহিতা মেয়ে সব কিছু ঘিরেই তার আদরের স্বামী, আর এই স্বামী পায়ের নিচেই স্ত্রীর বেহেস্ত ।আর আপনি কিনা আপনার স্বামী সন্তান ছেড়ে অন্য পূরুষের দিকে নজর দিয়েছেন। অন্য পুরুষের সাথে কথা বলতেন। এটা আপনার স্বামিকে ধোকা দেওয়া হচ্ছে। 


মানলাম ছেলেটি আপনাকে অনেক ভালোবাসে কিন্তু আপনি তো বুঝতেন যে ছেলেটি আপনাকে ভালোবাসে তবুও কেনো তার সাথে চ্যাট করলেন ফেসবুকে তখন আপনার স্বামী সন্তানের ভবিষ্যৎ এর কথা কি একবারো মনে পরলো না। 

আপু আশা করি আপনার মাঝে কোন খারাপ মনভাব নেই । আপনি কি চাইতেন যে আপনার বিবাহের পরেও আপনার পিছে হাজারো ছেলে ঘুরবে আপনাকে প্রপোজ করবে আপনাকে লাভ লেটার পাঠাবে,আপনার সাথে মজা করবে ফান করবে যেখানে কিনা আপনি একজন বিবাহিতা নারী আপনার ঘড় সংসার আছে তবুও নিজের স্বামি সংসার কে ভুলে কাজে ফাকে অন্য পুরুষের সাথে কথা বলতেন। এতে আপনার লজ্জা হওয়া উচিৎ।

  আপনার বিবাহিতা স্বামী কতই না আপনাকে ভালোবাসে আপনি তা আপনার মাঝেই বুঝে নিন তাকে পরিক্ষা করুন বুঝতে পারবেন। আপু একজন স্বমীর কাছে সব তার আদরের স্ত্রী যা আপনাকে আগামী মৃতুর আগ পর্যন্ত আপনাকে জীবন সাথি করেছে আর আপনি কি না সেই বিশ্বাস কে ভঙ্গ করে আপনি অন্য পুরুষের চিন্তাভাবনা করেন, অন্য পুরুষের সাথে চ্যাটিং করেন দেখা করেন  এটা অনেক অপরাত এটা যেকোন ধর্ম মেনে নিবে না।

আপু আপনাকে আপনার স্বামী বিশ্বাস করে যে  আপনি মোবাইলে কোন অপরিচিত ব্যাক্তির সাথে কথা বলবেন না বা আপনার স্বামিকে ছাড়া কোন ব্যক্তিকে ভালোবাসবেন না তা সকল স্বামী স্ত্রীই চায়। আপনার স্বামীর এই বিস্বাস টি আপনার উপর ছিলো।   আপু প্রতিটা মানুষ বিশ্বাসের উপর বেচে আছে এটা ভেবে যে আমার সৃষ্টি কর্তা আমার আল্লাহ,।  


আশা করি আমার কথা গুলো বুঝতে পারছেন। আর হ্যা যা করবেন ভেবেচিন্তে করবেন।

কথায় আছে ভাবিয়া করিও কাজ, করিয়া ভাবিও না। তাই জীবন টি আপনার আপনিই ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নিবেন যাতে করে আপনার মান সম্মান,ভালোবাসা,সুখের সংসার এই দেশ ও সমাজের কাছে পরাজিত না হয়।

আর আপনি পারেন দুইটি পরিবারের সম্মান রক্ষা করতে ও দুইটি সমাজের মানুষের সম্মান রক্ষা করতে। যা আপনার স্বামীর পরিবার ও সমাজ আপনার বাবা মায়ের পরিবার ও সমাজ। তাই ভেবে চিন্তে সিদ্ধান্ত নিবেন।



+1 টি পছন্দ
করেছেন (31 পয়েন্ট)
এই অবস্থায় উচিত ঐ ছেলের সাথে টোটালি যোগাযোগ বন্ধ রাখা । নিজের পরিবার নিয়ে সুখি থাকা । ঐ ছেলে মরবে না এগুলা নাটক। আপনি থানায় একটা জিডি করে রাখেন যে তারা কি করছে এবং সব যোগাযোগ পুরোপুরি বন্ধ রাখুন। 
0 টি পছন্দ
করেছেন (156 পয়েন্ট)
এই অবস্থায় প্রথমে ছেলেটিকে বুঝাতে হবে । তাতে না হলে তার মাকে বলতে হবে ছেলেটিকে বিয়ে দিতে । আর তারপরও যদি না হয় তাহলে আপনার বোনকে বলেন, ছেলেটির সাথে কিছুদিন কথা বলে তাকে আস্তে আস্তে এভয়েড করে চলতে । কিছুদিন সময় নিলেই ছেলেটি তার ভুল বুঝতে পারবে । শেষ পর্যন্ত যদি তাতেও না হয়, তবে আপনার বোনকেও ছেলেটিকে ব্লাকমেইল করতে হবে । এক্ষেত্রে আপনার বোন বলতে পারে, "তার(ওই ছেলের) সাথে আমার বিয়ে দিলে আমি বিয়ের রাতেই আত্নহত্যা করব, আর তাতে ছেলেসহ ছেলের পরিবারের সবাইকে জেল খাটতে হতে পারে ।"

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

312,364 টি প্রশ্ন

401,965 টি উত্তর

123,428 টি মন্তব্য

173,096 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...