বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
32 জন দেখেছেন
12 জুন "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল

কিছু পরামর্শ চাই। 


আমি যে কলেজে পড়ি সেই কলেজের ৩য় বর্ষের ২ টা আপু আছে যারা আমাকে খুব বেশি ভালোবাসে,স্নেহ করে,অনেক খেয়াল রাখে আমার। এক কথাতে বলতে গেলে আপন বোনের মত করেই দেখে আমাকে। আমার জ্বর হলে তাঁদের চোখের ঘুম হারাম হয়ে যায়,আমি একটু অসুস্থ হলে তাঁরা চিন্তা করা শুরু করে।

  কিন্ত মাঝে মাঝে আমি উনাদের কষ্ট দিয়ে ফেলি, যেটা পরে বুঝতে পারলে অনেক খারাপ লাগে নিজের কাছে।

আমি গত দিন ছোট  আপু কে প্রশ্ন করেছিলামঃ আমার এত খেয়াল রাখেন কেন?  উনি উত্তর দিয়েছিলেনঃ তোর কিছু হলে আমার ভাল লাগে না কেন জানি না কষ্ট হয় খুব খারাপ লাগে। 

তাঁর কিছু দিন আগে বড় আপু  আমাকে একটু বকে ছিল আমি রাগ করে উনাদের রুম থেকে চলে আসি( আমাদের রুম আলা,, উনারা এক রুমে থাকেন আমি অন্য রুমে থাকি) পরে উনি রাত ২ টার সময় আমার রুমের সামনে এসেছিলেন,কিন্ত আমাকে ডাকেন নাই,পরে বিকেল বেলা আমি ঘুমিয়ে ছিলাম তখন উনি আমার রুমের সামনে এসেছিলেন কিন্ত রুমে প্রবেশ করেন নাই। পরে আমাকে কল দিয়ে বাহিরে ডেকে নিয়ে কথা বললেন এবং সর্বশেষ এ বললেনঃ   তোকে বকা দিয়ে, কষ্ট দিয়ে আমি একটু ও ভাল থাকতে পারি না। গত রাতে আমার ঘুম ই হয় নাই তোকে বকা দিয়েছি সে জন্য।


আমার ভিশন ভয় করে কোন কারণে যদি আমাদের সম্পর্ক টা নষ্ট হয়ে যায় তাহলে অনেক কষ্ট পাব। ভয় এই জন্য করে আমাদের সম্পর্ক টা এত ভাল যে এটা দেখে অনেকে সহ্য করতে পারে না। আমার রুম মেট দের মাঝে ও কেউ কেউ এটা সহ্য করতে পারে না।

আমি চাই উনাদের সাথে সম্পর্ক টা আরও বেশি  দৃঢ় হোক।


কোন কোন উপায় মেনে চললে আমাদের ভিতর কেউ ফাটল ধরাতে পারবে না বা আমাদের ৩ জন কে কেউ আলাদা করতে পারবে না। কিভাবে আমি তাঁদের কাছে আরও প্রিয় হয়ে উঠতে পারি.........!????


বিঃদ্রঃ হিংসুক দের অভাব নাই আমাদের ভিতর ফাটল ধরাতে পারলে কিছু মানুষ শান্তি পাবে কিন্ত তা আমি হতে দিতে চাই না।  তাই কিছু পরামর্শ চাই যা দিয়ে আমাদের মাঝে সম্পর্ক টা আরও দৃঢ় হবে।       

1 উত্তর

0 টি পছন্দ
12 জুন উত্তর প্রদান করেছেন (13,628 পয়েন্ট)

শুরুতেই বলবো-নিন্দুকের নিন্দাকে আপনি কখনোই থামাতে পারবেন না। কিংবা হিংসুকদের হিংসাও আপনি কখনোই বন্ধ করতে পারবেন না। কাজেই কোনো প্রয়োজন নেই এসব কানে তোলার। দেখুন,জীবনে চলতে গেলে আমরা বারবার হোচট খাই,কিন্তু কয়জন আছে যারা আপনাকে টেনে তুলবে..? কয়জন আপনাকে আবার সোজা হয়ে দাঁড়াতে সাহায্য করবে..? হাতে গোনা কয়েকজন। কিন্তু আপনার সেই হোচট নিয়েই বড় অঙ্কের লোকেরা উপহাস করবে। এটাই দুনিয়ার নিয়ম,এটাই আমাদের চরিত্র। কাজেই আপনি বা আপ্নারা এসবে কান দিবেন না। কেউ এসে তাদের নামে যদি আপনাকে কুমন্ত্রণা দেয়,তাহলে তাকে এড়িয়ে চলুন এবং ব্যাপারটি আপনার সেই বড় আপুদের সাথে শেয়ার করুন। আপনার আপু ২জন আপনাকে এতই ভালবাসে,অবশ্যই তারা কখনো আপনাদের ৩জনের সম্পর্কে ফাটল ধরতে দিবেন না কোনোকিছুর মূল্যে। কাজেই যে যা ই বলুক,আপ্নারা নিজেদের রাস্তায় হাটতে থাকুন। আর এবার আসি আপনার ব্যাপারে, ব্যক্তিগত ভাবে বলবো আপনার রাগ কিঞ্চিত বেশি। কথায় আছে-রাগলেন তো হারলেন। কাজেই নিজেকে সংযত রাখার চেষ্টা করুন। দেখুন, আপনার পিতামাতা আপনাকে বকা দেয়না..? তারা কেন আপনাকে বকা দেয়..? অবশ্যই উত্তরটি আপনার আমার সবার জানা আছে। মনে রাখবেন, বকা দেয়ার অধিকার টা সবাই পায়না। কাজেই আপনাকে আপুদ্বয় স্নেহ করে,ভালবাসে তাই আপনাকে বকা দেয়। আপনি সব কিছু পজেটিভলি নেয়ার চেষ্টা করুন। কেউ বকা দিলে সেই বকা দেয়ার কারণ টা খুঁজুন এবং নিজেকে সেটার থেকে বিরত রাখুন। আপনি আপুদের খোজ খবর নিন। আরেকটা কথা-তারা যেন কখনো আপনাকে বেয়াদব কিংবা অভদ্র না ভাবেন এদিকে খেয়াল রাখবেন। দোষ করলে "সরি" বলার অভ্যাস করুন। দেখুন,৩জনেত রিলেশনশিপ কত সুন্দর হয়।


13 জুন মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (13 পয়েন্ট)
নিন্দুকের কথা বাদ দিন।আর আপনার রাগ হলে যতটুকু পারেন চুপ থাকবেন ,ইচ্ছে হলে একটা দীর্ঘশ্বাস নিতে পারেন কিংবা বেসিনে গিয়ে মুখে পানির ঝাপটা দিতে পারেন,এভাবে অবশ্যই রাগ কন্ট্রোলে থাকবে।পরক্ষণেই সরি বলুন নিজের ভুলের জন্য।দেখবেন সব ঠিক থাকবে।ইগো রাখবেন না।এতে করে আপনাদের রিলেশন ঠিকই থাকবে।এর বাইরে ভুলগুলো সমন্ধে ভাববেন না ,বাকি সব নিন্দুকেরা ঠিক কাউন্ট করে নেবে।সবার সাথে ভালো ব্যবহার বজায় রাখুন ,রাগ কমান ।দেখবেন নিন্দুকেরাও যে কখন বোনের মত হয়ে গেল বুঝতে পারবেন না।
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

305,419 টি প্রশ্ন

394,234 টি উত্তর

120,076 টি মন্তব্য

169,300 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...