বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
198 জন দেখেছেন
"বিনোদন ও মিডিয়া" বিভাগে করেছেন (935 পয়েন্ট)
বন্ধ করেছেন
এই চিরকূট সহকারে বন্ধ করা হয়েছে : যথেষ্ট উত্তর দেওয়া হয়েছে। এখন শুধু মন্তব্য করতে পারেন।

5 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (3,872 পয়েন্ট)
* জোকস-১

টিংকু: মা মা, প্রেগন্যান্ট কী?

মা : যা এখান থেকে ফাজিল।

টিংকু ভাবলো প্রেগন্যান্ট অর্থ রাগ করা। পরদিন টিংকু স্কুল থেকে বাসায় আসার সময় তার ক্লাসের একটি মেয়েকে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দিলো।

মেয়েটির মা: ফাজিল, বাঁদরামি করো? দেবো এক চড়!

টিংকু: আরে, যা ঘটছে, আপনার মেয়ের সাথে ঘটছে। প্রেগন্যান্ট হলে সে হবে! আপনি কেন প্রেগন্যান্ট হলেন?

* জোকস-২

শিক্ষক: বলতো রিপন মেয়েদের লজ্জা বেশি না, ছেলেদের বেশি?

রিপন: ছেলেদের।

শিক্ষক: কীভাবে?

রিপন: স্যার, সব ফিল্মে মেয়েরা হাফ প্যান্ট পরে আর ছেলেরা পরে ফুল প্যান্ট।

* জোকস-৩

শিক্ষক: তোমরা আমায় কথা দাও, কখনো সিগারেট খাবে না।

ছাত্ররা: ঠিক আছে স্যার, খাবো না।

শিক্ষক: মেয়েদের পেছন পেছন ঘুরবে না।

ছাত্ররা: ঠিক আছে স্যার ঘুরবো না।

শিক্ষক: ওদের কখনো ডিস্টার্ব করবে না।

ছাত্ররা: ঠিক আছে স্যার, ডিস্টার্ব করব না।

শিক্ষক: দেশের জন্য জীবন দিয়ে দেবে।

ছাত্ররা: অবশ্যই স্যার, এই রকম জীবন দিয়ে আর করবই বা কী!

* জোকস-৪

শিক্ষক: যারা নিজেকে বোকা ভাবো তারা উঠে দাঁড়াও!

কিন্তু কেউ উঠে দাঁড়ালো না। কিছুক্ষণ পর মুখে হাসি নিয়ে উঠে দাঁড়ালো ক্লাসের সবচেয়ে পাজি ছাত্র সুমন।

শিক্ষক: ও, তাহলে তুই নিজেকে বোকা ভাবিস?

সুমন: স্যার, ঠিক তা নয়। আসলে আপনি একাই দাঁড়িয়ে আছেন, ব্যাপারটা কেমন দেখা যায় না!
0 টি পছন্দ
করেছেন (566 পয়েন্ট)
 ১.কাঁদছো কেন? 

ক্রন্দনরত শিশুকে জিজ্ঞেস করা হলো, কাঁদছো কেন? -বাবা মেরেছেন। -খুব ব্যথা পেয়েছ বুঝি! -মোটেও না। -তাহলে কাঁদছ যে! -বাবাকে খুশি করার জন্য। 

২.কোথায়য় সাঁতার শিখলেন? 

ক্যাপ্টেন: সৈনিক, আপনি কি সাঁতার জানেন? সৈনিক: জানি, স্যার। ক্যাপ্টেন: কোথায় সাঁতার শিখলেন? সৈনিক: পানিতে স্যার। 

৩. স্ত্রী সম্পর্কে স্বামীরা যা বলেন বহুদিন পর দুই বান্ধবী তাদের 

স্বামীকে নিয়ে গল্প করছে- প্রথমজন: আর পারি না। বুঝেছিস! আমার স্বামী সবসময় তাঁর আগের বউয়ের কথা বলতে থাকে। দ্বিতীয় জন: তাও ভালো! আমার স্বামী তো ভবিষ্যতে তার বউ যে হবে, তাকে নিয়ে কথা বলে। 

৪.সুন্দরী মেয়ে দেখলে ভুলে যাও স্বামী-স্ত্রী পার্কে ঘুরতে গেল। সুন্দরী মেয়ে দেখলেই স্বামী সেদিকে তাকাচ্ছে। তাই রাগ করে স্ত্রী বলল- স্ত্রী: সুন্দরী কোনো মেয়ে দেখলেই তুমি ভুলে যাও যে তুমি বিবাহিত। স্বামী: ভুলে যাই না, বরং আরো বেশি করে মনে পড়ে। 

৫.আজদুষ্টুমি করনি তো দুষ্টু ছেলেকে স্কুলে পাঠিয়ে চিন্তায় থাকেন বাবা। স্কুল থেকে ফিরে এলে জানতে চান- বাবা: স্কুলে আজ দুষ্টুমি করনি তো আব্বু? ছেলে: না আব্বু, সারাক্ষণ কানে ধরে বেঞ্চের উপর দাঁড়িয়েছিলাম। 

৬.রক্ত দিয়ে লেখা প্রেমপত্র পল্টু : এক বোতল রক্ত দিন তো। নার্স : রক্তের গ্রুপ বলো। পল্টু : যেকোনো একটা গ্রুপ হলেই চলবে। নার্স : কী করে চলবে? পল্টু : গার্লফ্রেন্ডকে রক্ত দিয়ে প্রেমপত্র লিখবো। 

৭.শাশুড়িরতো দেখতে শাশুড়ি : বউমা, তুমি কাঁদছো কেন? বউ : মা, আমি কি পেত্নীর মতো দেখতে? শাশুড়ি : না, একেবারেই না।  বউ : আমার চোখ দু’টি কি আমড়ার মতো? শাশুড়ি : না তো।  বউ : আমার নাকটা কি পাকোড়ার মতো? শাশুড়ি : না না। বউ : আমি কি মোষের মতো মোটা আর কালো? শাশুড়ি : না বউমা, এসব তোমাকে কে বলেছে? বউ : তাহলে পাড়ার সবাই আমাকে কেন বলে, তুমি তোমার শাশুড়ির মতো দেখতে। 

৮.তুই পড়লি কীভাবে ?

শিক্ষক : কাল রাতে কে কয়টা পর্যন্ত পড়েছিলি? আবু : স্যার, আমি রাত ১২টা পর্যন্ত পড়েছিলাম। শিক্ষক : তাই, সত্যি কথা বলবি কিন্তু।  আবু : হ্যাঁ স্যার, সত্যি বলছি। শিক্ষক : কাল রাতে তো ৯ টার পরে কারেন্ট ছিলো না, তাহলে তুই পড়লি কীভাবে? আবু : পড়ায় এতো মনযোগ ছিল যে, কখন কারেন্ট চলে গেছে বুঝতেই পারিনি।  
0 টি পছন্দ
করেছেন (5,315 পয়েন্ট)

বিজ্ঞান শিক্ষক ক্লাস নিচ্ছেন। হঠাৎ দেখলেন ত্যাঁদর ছাত্র মন্টু ঘুমাচ্ছে।


শিক্ষক: মন্টু...উ... ক্লাসে ঘুমাচ্ছিস? সাহস তো কম নয়!


ধরমর করে লাফিয়ে উঠে মন্টু: স্যার ঘুমাই নাই তো...


শিক্ষক রাগত কণ্ঠে: বেঞ্চে মাথা রেখে ঘুমুচ্ছিলি না তুই?


মন্টু: স্যার কী যে বলেন! আপনে মাধ্যাকর্ষণ শক্তি নিয়া পড়াইতেছিলেন তো... একটু প্র্যাকটিক্যাল করছিলাম আরকি... আপনি ঠিকই বলছেন স্যার।


শিক্ষক: মানে?!


মন্টু: স্যার, মাথার ভার ছেড়ে দিতেই ঘাড়সহ তা নিচে নেমে যাচ্ছিল... মানে মাধ্যাকর্ষণের টানে... বেঞ্চে মাথা...


শিক্ষক: হায় খোদা... আমি কোথায় এলাম!


                                               (২)


চরিত্রে আলুর দোষ আছে কিন্তু অসাধারণ অভিনয় জানে- তাই পরিচালকরা এখনও তাকে কাজে ডাকে। এমন ভিলেন কামরুল গেছে পরিচালকের কাছে বিশেষ একটি আবদার নিয়ে।


ভিলেন : আজকাল সবকিছু রিয়ালিস্টিক চায় সবাই।  


পরিচালক: তো! মতলবটা কী সেটা বলেন দেখি?


ভিলেন: মানে আপনার এই ছবিতে তো রেপ সিন আছে। বলছিলাম এটাকে রিয়ালিস্টিক কীভাবে করা যায়।


আরো পড়ুন  পারলে ক্ষমা করিস, দোস্ত!


পরিচালক: আপনার এসব নিয়ে ভাবার দরকার নেই। কাজ না থাকলে ডায়লগ মুখস্ত করেন গিয়ে এখন।  




ভিলেন: না, বলছিলাম কি... ওই রেপ সিনে তো আমি আছি, বস! মানে স্ক্রিপ্ট মোতাবেক নায়িকাকে আমিই...


পরিচালক: ছবির শেষ দৃশ্যে ভিলেনের বিষ খেয়ে মরার দৃশ্য আছে কিন্তু।


সেখানে তাহলে আসল বিষ রাখবো বলছেন?

ভিলেন লাফিয়ে উঠে: আরে বস... কী যে বলেন। জাস্ট মেকিং ফান...


                                               (৩)


স্ত্রী: আমার চুল সব পেকে সাদা হয়ে যাচ্ছে! হোয়াট শুড আই ডু?


স্বামী: ডোন্ট ওরি। জাস্ট ডাই!


স্ত্রী: হ্যাঁ! আমাকে তুমি মরতে বলছো?!


                                               (৪)




অবিবাহিত যুবকরা কোথাও ওয়াইফাই আছে দেখে শান্ত হয়ে যায় আর বিবাহিতরা ওয়াইফ-আই মানে বউয়ের রক্তচক্ষু দেখে শান্ত হয়ে যায়- মন্টুর বাপের পর্যবেক্ষণ


                                               (৫)


বস : এটা কেমন সেক্রেটারি নিলেন? লাইট বললে নাইট শোনে, ট্যাক্সি বললে সেক্সি শোনে, শাউট বললে আউট শোনে? লেখেও তাই!


মন্টুর বাপ: স্যার, আপনার কথা মতো রাখতে গিয়েই তো অমন...


বস : মানে? আমি বলেছি এমন রাখতে?


মন্টুর বাপ: আপনি বলছিলেন গ্ল্যামার দেখে সেক্রেটারি রাখতে। তো গ্ল্যামারাস খুঁজতে গিয়ে...


বস: হায় কপাল আমার! বলেছিলাম গ্রামার বোঝে এমন মেয়ে খুঁজতে!  


মন্টুর বাপ : স্যার! ইংরেজি ভাষাটা যে কেন এমন...


তথ্যসূত্র


0 টি পছন্দ
করেছেন (495 পয়েন্ট)
মলে আগুন লাগার পর . কতৃপক্ষ জানাল যে আপনারা সবাই মল ত্যাগ করুন.আর এ শুনে সবাই বাথরুমে যাচ্ছে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (1,220 পয়েন্ট)
কয়েকটি মজার  জোকস দেওয়া হল

১.এক মিনিটের জন্য মানুষ  

ভিক্ষুক মাগো  দুটি  ভিক্ষা দিন মা । বাড়ির  মালিক  বাড়িতে নেই  যাও ।

ভিক্ষুক আপনি যদি  এক মিনিটের  জন্য মানুষ হন

তাহলে তাহলে খুব ভাল হতো

২.দাদাঃ তার নাতিকে বলছে  যা পালা তাড়াতাড়ি। 

তুই আজকে ইস্কুলে যাস নাই তাই  তোর টিচার বাড়িতে আসছে  নাতীঃ আমি পালাবো না   তুমি বরং পালাও  কারণ 

 আমি স্যার কে  বলেছি আমার দাদা  মারা গেছে  তাই ইস্কুলে যাইনি 

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

4 টি উত্তর
03 জুলাই 2016 "বিনোদন ও মিডিয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sagar Das (56 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর
02 মে 2018 "প্রেম-ভালোবাসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন RR Alone (14 পয়েন্ট)
2 টি উত্তর
1 উত্তর
18 জুলাই "বিনোদন ও মিডিয়া" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন LC Mamun (110 পয়েন্ট)

322,383 টি প্রশ্ন

412,856 টি উত্তর

127,881 টি মন্তব্য

177,579 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...