বিস্ময় অ্যানসারস এ আপনাকে সুস্বাগতম। এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং বিস্ময় পরিবারের অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন। বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...
52 জন দেখেছেন
"ইবাদত" বিভাগে করেছেন অজ্ঞাতকুলশীল
4 রাকাত ফরজ নামাজে ইমামের পেছনে আদায় করার সময় শেষ

 ২ রাকাতে যখন ইমান নিরবে সূরা ফাতিহা তেলওয়াত করে তখন 

কি পেছনের মোসল্লীরাও তা মনে মনে/নিরবে তেলওয়াত করবে ?

2 উত্তর

0 টি পছন্দ
করেছেন (433 পয়েন্ট)
ইমামের প্রকাশ্য কেরাতে মুকতাদি কেরাত পরবে না। কেননা একবার রাসুলুল্লাহ সাঃ প্রকাশ্য কেরাত বিশিষ্ট নামাজের শেষে( এক বর্ননায় তা ছিল ফজরের নামাজ) সাহাবিদের জিজ্ঞেস করলেন, তোমরা কি আমার সাথে নামাজে কেরাত পরেছিলে? এক ব্যাক্তি বল্ল, হ্যা আমি, হে রাসুলুল্লাহ সাঃ! তিনি বললেন অন্যরা যখন কেরআত পরে তখন কেন আমি আর কেরায়াত পড়বো? একথা শুনে লোকেরা প্রকাশ্য কেরায়াত বিশিষ্ট নামজে কেরায়াত পড়া সম্পুর্ণ ত্যাগ করলেন এবং শুধুমাত্র ইমামের অপ্রকাশ্য কেরায়াত বিশিষ্ট নামাজে মনে মনে কেরায়াত পড়েন।- মালেক, হেমায়দী, বোখারী, আবু দাঊদ, মাহালেমী। তিরমিজি এটাকে উত্তম এবং আবু হাতেম রাযী, ইবনু হিব্বান ও ইবনুল কাইয়্যেম এটাকে সহিহ বলেছে।
0 টি পছন্দ
করেছেন (142 পয়েন্ট)
চার রাকাত অথবা দুই রাকাত যে কোন ফরজ নামাজেই মুসুল্লী ব্যক্তি যখন নামাজের শুরুতে এই নিয়ত করলো যে আমি এই ইমামের পিছনে নামাজ আদায় করছি, এই কথা বলার মাধ্যমে মুসুল্লী ব্যক্তির সমস্ত দায় দ্বায়িত্ব ইমামের উপর চলে যায়, যার কারণে মুসুল্লী ব্যক্তির কেরাআত পড়তে হয় না, চাই কেরাআত টা উচ্চ শুরে হোক বা অউচ্চ শুরে হোক তবে তাসবীহাত গুলো ( রুকুর তাসবীহ, সেজদার তাসবীহ, তাশাহুদ, দরুদ শরীফ) মুসুল্লী ব্যক্তির পড়তে হবে।

তাই আমি বলবো ইমামের আস্তে কেরাতের ( ফাতেহা হোক বা অন্য কোন সূরা হোক) ‍সময়  মুসুল্লীর কেরাআত পড়তে হবে না, চুপ থাকলেই চলবে।
করেছেন (433 পয়েন্ট)
কোন দলিল আছে আপনার কাছে
টি উত্তর

সম্পর্কিত প্রশ্নগুচ্ছ

300,480 টি প্রশ্ন

388,358 টি উত্তর

117,371 টি মন্তব্য

165,886 জন নিবন্ধিত সদস্য

বিস্ময় বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম। এখানে আপনি আপনার প্রশ্ন করার পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন অনলাইনে বিভিন্ন সমস্যার সমাধানের জন্য সবথেকে বড় এবং উন্মুক্ত তথ্যভাণ্ডার গড়ে তোলার কাজে।
...